বাংলাদেশের স্বাধীনতার (ইতিহাস নির্ভর) সারি গান

শহীদ মিনার
[ভাষা আন্দোলনের শহীদ মিনার]

(উৎসর্গ: ৭১-এর বীর মুক্তিযোদ্ধাদের, যাঁরা আমাদের স্বাধীন একটি দেশ দিয়েছেন; দিয়েছেন রক্তে রাঙা লাল সবুজ পতাকা)

শোনেন শোনেন দেশবাসী, শোনেন সুধী দশ জনা
স্বাধীনতার স্বাধীন কথা করি বর্ণনা
হায় হায় করি বর্ণনা।।

বাংলা আমার মায়ের আচল, বাংলা বধূর সোনার কাঁকন
বাংলা আমার সবুজ-শ্যামল, মায়ের মুখের সান্ত্বনা।।

উনিশশো সাতচল্লিশ সালে, পাক-ভারত হায় স্বাধীন হয় রে
বাংলা পড়লো পাকিস্তানে, সেই যে দুখের সূচনা।।

পাকিস্তানি শাসকেরা বলে, “নই তো বাংলা ভাষা
উর্দু হবে রাষ্ট্রভাষা,” বাংলা ভাষা চলবে না।।

উনিশশো বাহান্ন সালে, রফিক শফিক জব্বার সবে
রক্ত দিয়ে আঁকলো ভাইরে, বাংলা ভাষার আলপনা।।

সেই যে মোরা ভাই হারালাম, বাংলা মায়ের ভাষা পেলাম
ভাষা পেয়ে বীর বাঙালী, শোষণ-শাসন মানে না।।

উনিশশো ঊনসত্তরে, জনগণ ভাই সবাই খ্যাপে
শত্তুর সালের নির্বাচনে, শাসকদের জাত রইলো না।।

বাংলা মায়ের সোনার ছেলে, শেখ মুজিব আর সবাই বলে
বাংলার শাসক বাঙাল হবে, পাক শাসন আর মানবো না।।

সাতই মার্চ শেখ মুজিব বলে, লাখো বাঙালির তরে
বাংলাদেশ স্বাধীন হবে, পরাধীনতা মানবো না।।

পঁচিশে মার্চ একাত্তুরে, পাকবাহিনী ভয়াল রাতে
আমার ভাইয়ের রক্তে ভাসায়, পদ্মা মেঘনা যমুনা।।

নয় মাস ভাই যুদ্ধ হয়রে, পাকবাহিনী মানুষ মারে
নারী-ধর্ষণ মায়ের সম্ভ্রম, লুটতে বাকী রাখলো না।।

পাকবাহিনীর সহযোগী, ‘রাজাকার বদর-বাহিনী’
ধর্মের নামে মারলো মানুষ, সইতে নারি যন্ত্রণা।।

ডিসেম্বরের ষোল তারিখে, পাকবাহিনী খতম করে
বাংলা মাকে করলো স্বাধীন, রক্ত দিয়ে দশ জনা।।

স্বাধীনতার স্বাধীন কথা, স্বাধীন মানেই মুক্ত কথা
রক্তে কেনা মুক্তি মোদের, ছিনিয়ে নিতে পারবে না।।

আরো পড়ুন:

নারী শিক্ষা ও স্বাধীনতা বিষয়ক সারি গান

জ্ঞান বিষয়ক সংগীত

মন্তব্য করুন