নারী শিক্ষা স্বাধীনতা বিষয়ক সারি গান

(দৃষ্টিভঙ্গি: আমরা বিশ্বাস করি নারী-পুরুষের সম-অধিকার ও সমান অংশগ্রহণ)

শোনেন শোনেন দেশবাসী
শোনেন সবে দশ জনা
নারীর শিক্ষা, নারীর কথা করি বর্ণনা।
হায় হায় করি বর্ণনা।।

আদমকে ভাই সৃষ্টি করে, আল্লা-তালা স্বর্গে রাখে
স্বর্গে আদম একলা রইলো, একলা রইয়া দুখী হইলো
আল্লা হাওয়ায় সৃষ্টি করে, পূর্ণে স্রষ্টার রচনা।।

আদম-হাওয়া স্বর্গ সুখে, কাটায় তারা শান্তি শাঁখে
আল্লা-তালা নিষেধ করে, “গন্দম বৃক্ষে চাইবি না রে”
খাইল গন্দম নিষেধ ঠেলে, সেই তো দুখের সূচনা।।

আদম-হাওয়া দুনিয়াতে, বহু কষ্টে মিলন হলে
মিলে-মিশে সংসারেতে, রচে বিশ্ব মানবেরে
আদম হাওয়ায় সুখে রাখলেও, বাংলার হাওয়ার যন্ত্রণা।।

হাওয়া যদি না থাকিত, আদম তবে কি করিত?
নারী যদি না আসিত, গর্ভ ধারণ কে করিত?
সেই হাওয়া আজ মূর্খ রইয়া, আদম যে সুখ পাইলে না।।

আমরা নারী আমরা মাতা, আমরা তোদের জনম দাতা
আমরা কন্যা আমরা জায়া, জগতেরই শান্তি-ছায়া
সেই নারী আজ অবহেলায়, শিক্ষা-দীক্ষা পাইলো না।।

আইন-ধর্ম-সংবিধানে, নারী-পুরুষ সমান সবে
অন্ন বস্ত্র বাসস্থানে, নারী পুরুষ সমান হবে
সমান শিক্ষা চিকিৎসাতে, কোন ভেদাভেদ চলবে না।।

মাতা-পিতার সমান আদরে, কন্যা শিশু উঠুক বেড়ে
কন্যা শিশু সুযোগ পেলে, জগত আলো করবে শেষে
সম-অধিকার, সমান আদর, নারী জাতি পাইলো না।।

শিক্ষা অন্ধে আলো ভাইরে, শিক্ষা বিনা মুক্তি নাইরে
শিক্ষিত মা এলে ঘরে, ভালো সন্তান জন্মে ভবে
মায়েরা সব মূর্খ রইলো, আলোর দিশা পাইলো না।।

লেখাপড়া না শিখিলে, মানবজনম বৃথা ভবে
স্বাবলম্বী না হইলে, বেগার খেটে মরবি শেষে
নারী নির্যাতন-যৌতুক প্রথা, শিক্ষা বিনা উঠবে না।।

তাই বলি ভাই দেশবাসী, নারীর কথা ভাবেন বসি
তাই বলি ভাই দেশবাসী, শোন পুত্র-বাবা-স্বামী”
নারী জাতির উন্নয়নে, আর তো দেরি চলবে না।।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।